নোয়াখালীতে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া কিশোরীর লাশ উদ্ধার

নোয়াখালীর জেলা শহর মাইজদীতে ঘরের তালা ভেঙে কিশোরীর রক্তাক্ত ও অর্ধনগ্ন মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নোয়াখালী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের লক্ষ্মীনারায়ণপুর এলাকায় ওই শিক্ষার্থীর নিজ বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তাসমিয়া হোসেন অদিতি (১৪) নোয়াখালী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের লক্ষীনারায়ণপুর মহল্লার মৃত রিয়াজ হোসেনের ছোট মেয়ে এবং স্থানীয় নোয়াখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। তারা দুই বোন। শারীরিক প্রতিবন্ধী বড় বোন ঢাকায় থাকে। অদিতি ও তার মায়ের বসবাস একসাথে।

নিহতের মা বলেন, সকালে আমি আমার স্কুলে চলে যাই। আমার মেয়ে বাসাতেই ছিল। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এসে দেখি বাসার বাইরে থেকে তালা দেয়া। তালা ভেঙে দেখি ঘরের জিনিসপত্র লণ্ডভণ্ড। মেয়ের শোবার ঘরের ভেতর থেকে বন্ধ দেখে জানালা দিয়ে ওর রক্তাক্ত দেহ খাটে পড়ে থাকা দেখি।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ওই কিশোরীকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশকে জানানো হয়। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় ওই স্কুল ছাত্রীর নিজ শয়ন কক্ষে তার গলা কাটা ও হাতের রগ কাটা মরদেহ পড়ে আছে। তবে এখন পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের কোনো কারণ জানা যায়নি।

ওসি আরও জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

পত্রিকাএকাত্তর / আবু সাঈদ

সম্পর্কিত নিউজ

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ নিউজ