patrika71
ঢাকাবুধবার - ১৯ অক্টোবর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

স্কুল শিক্ষার্থীকে জোর পূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ

MD Polash Hossin
অক্টোবর ১৯, ২০২২ ৭:৩৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় এস.এস.সি পরীক্ষার্থীকে জোর পূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ছাত্রীর পিতা হানিফ মিয়া বাদী হয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ২৭ আগষ্ট রোববার গভীর রাতে উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের তালতলী নামক এলাকার ইয়াছিন চুকানী বাড়ির হানিফ মিয়ার মেয়ে শাহজাদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এস.এস.সি পরীক্ষার্থী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাথরুমে যায়।

বাথরুম থেকে ফেরার পথে একই বাড়ির দুই সন্তানের জনক আনোয়ার হোসেন কালা (৩২) পেছন দিক থেকে মুখ চেপে ধরে মেয়েটির ওড়না দিয়ে হাত বেঁধে ফেলে পাশ্ববর্তী বাড়ির সিরাজের পরিত্যাক্ত ঘরে নিয়ে গিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। বর্তমানে মেয়েটি নোয়াখালী গাইনী বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে। কালা একই বাড়ির জয়নাল আবেদিনের ছেলে।

ভুক্তভোগীর পিতা হানিফ মিয়া জানান, অনেক আগ থেকে কালার খারাপ দৃষ্টি পড়ে আমার মেয়ের দিকে। কালা বিবাহিত, ২ সন্তানের জনক। সে সম্পর্কে আমার মামাতো ভাই। ঘটনার দিন আমার ঘরে কেউ ছিল না।

সে এ সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে আমার মেয়েকে ধর্ষণ করে। আমি ৩১ আগষ্ট বুধবার বাদী হয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছি। বর্তমানে আমার মেয়ে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে গাইনী বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

হানিফ মিয়া আরও জানান, কালা এলাকায় একটি রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ার রয়েছে। অভিযোগ দায়েরের পর থেকে কালা ও তার পরিবার অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য আমাকে মোবাইলে হুমকি ধমকি দিচ্ছে। আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় আছি।

এ ব্যাপারে ধর্ষণকারী কালার পিতা জয়নাল আবেদিনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ফোন কেটে দেন। কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সাদেকুর রহমান এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ভুক্তভোগীর পিতা হানিফ মিয়া আজ বুধবার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের তদন্ত চলছে। তদন্তে প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পত্রিকা একাত্তর /আবু সাঈদ