ডোমারে শীতবস্ত্র বিতরণ করলো ‘সবার পাঠশালা’

উপজেলা প্রতিনিধি, ডোমার

উপজেলা প্রতিনিধি, ডোমার

১৬ জানুয়ারী, ২০২২, ৪ months আগে

ডোমারে শীতবস্ত্র বিতরণ করলো ‘সবার পাঠশালা’
ফাইল ছবি | পত্রিকা একাত্তর

সমাজের অসহায়, দুঃস্থ ও দরিদ্র মানুষের জন্য আর্ত-মানবতার স্বার্থে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে শিক্ষা, সেবা, মানবতা, জলবায়ু পরিবর্তন, এসডিজিএস সহ কাজ করা সামাজিক সংগঠন 'সবার পাঠশালা'।

রবিবার (১৬ই জানুয়ারী) নীলফামারীর ডোমার উপজেলার নিমোজখানা স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে প্রাথমিকভাবে ২৫০ জনকে শীতবস্ত্র দিয়ে ‘সবার পাঠশালা শীতবস্ত্র বিতরণ উৎসব-২০২২’ এর উদ্বোধন করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় নীলফামারী জেলার ডোমার, ডিমলা, জলঢাকা উপজেলা সহ রাজশাহীতে ৫০০ শীতবস্ত্র বিতরণ করা হবে।

‘সবার পাঠশালা শীতবস্ত্র বিতরণ উৎসব-২০২২’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন—নিমোজখানা স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক বিনয় কৃষ্ণ রায়। এতে সভাপতিত্ব করেন—‘সবার পাঠশালা’র প্রতিষ্ঠাতা উপদেষ্টা ও নিমোজখানা স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক বকুল রায়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন—নিমোজখানা স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক তপু রায়, নিমোজখানা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক গৌরাঙ্গ রায়, আমবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদ্মকিশোর রায়, কমললোচন রায়, শফিউল ইসলাম ও মিন্টু রায়।

‘সবার পাঠশালা শীতবস্ত্র বিতরণ উৎসব-২০২২’ এর তত্বাবধায়ন করেন—'সবার পাঠশালা'র প্রতিষ্ঠাতা সমন্বয়ক চন্দন রায়, রিপন রায়, গোপাল রায় ও সমন্বয়ক টিম।

'সবার পাঠশালা'র প্রতিষ্ঠাতা সমন্বয়ক গোপাল রায় বলেন, 'সবার পাঠশালা' মেহনতি সাধারণ, অসহায়, দুঃস্থ মানুষের সেবা সহ শিক্ষা ও সামাজিক উন্নয়নের কাজ করে চলছে। আশা করা যায়, সবার সহযোগিতায় এই ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে। আমরা এসব সামাজিক কাজে অবদান রাখার জন্য সম্প্রতি 'শেখ হাসিনা ভলান্টিয়ার ইয়্যূথ অ্যাওয়ার্ড-২০২০' পেয়েছি। যা আমাদের জন্য বড় অর্জন। আমাদের এসব কাজে অনুপ্রেরণা দেওয়া শ্রদ্ধেয় উপদেষ্টা স্যার সহ প্রতিষ্ঠাতা সমন্বয়ক, সমন্বয়ক, ম্যানেজিং ডিরেক্টর, কার্যকরী সদস্য, সাধারণ সদস্য, সেচ্ছাসেবক ও শুভাকাঙ্ক্ষী সহ সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা, শ্রদ্ধা ও সম্মান আজীবন থাকবে।

'সবার পাঠশালা'র আরেক প্রতিষ্ঠাতা সমন্বয়ক রিপন রায় বলেন, আমরা প্রত্যেক বছরের ন্যায় এইবারও 'সবার পাঠশালা শীতবস্ত্র বিতরণ উৎসব-২০২২' শুরু করলাম। এবারের লক্ষ্য ১৬ জানুয়ারী থেকে ২৫ জানুয়ারীর মধ্যে ৫০০ শীতবস্ত্র বিতরণ করা। ইতোমধ্যে যেসব স্যার, শুভাকাঙ্ক্ষী, বিভিন্ন সংস্থা আমাদের আর্থিকভাবে বা শীতবস্ত্র দিয়ে পাশে দাড়িয়েছেন তাদের প্রতি অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা।