সেবার আন্তরিকতা নিয়ে নার্সদের দায়িত্ব পালনের আহবান

অতিথি লেখক

১২ মে, ২০২২, ৪ দিন আগে

সেবার আন্তরিকতা নিয়ে নার্সদের দায়িত্ব পালনের আহবান
আজ বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক নার্স দিবস ২০২২। প্রতিপাদ্য বিষয়-স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনায় শক্তিশালী নার্স নেতৃত্বের বিকল্প নেই-বিশ্ব স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে নার্সিং খাতে বিনিয়োগ বাড়ান ও নার্সদের অধিকার সংরক্ষণ করুন।
দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশের ১৮ কোটি মানুষের সুচিকিৎসার বাস্তবায়নের একমাত্র সংগঠন জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটির মূল লক্ষ উদ্দেশ্য হচ্ছে চিকিৎসা পেশার সাথে সম্পৃক্ত সর্বস্তরের ডাক্তারকে সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত করা যাতে করে রোগী ও ডাক্তার উভয়ের অধিকার নিশ্চিত করা সম্ভব হয় এ জন্য প্রতিটি স্বাস্থ্য রিলেটিভি সকল দিবসে  ধারাবাহিক ভাবে জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটির পক্ষ থেকে পালন করা হয়।
আজকে বিষয় নিয়ে গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে  বাংলাদেশের বিশিষ্ট গবেষক ও জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ বলেন,মহিয়সী নারী ফ্লোরেন্স নাইটিংগেল’র জীবনী থেকে শিক্ষা নিয়ে দরিদ্র-অসহায় মানুষের সেবায় নার্সদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। আর সমাজে নার্সিং পেশাকে মানুষের কাছে একটি আদর্শ পেশা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে হবে।
একজন নার্স কোন রোগীর সাথে ভাল আচরণ করলে তার রোগ অর্ধেক ভাল হয়ে যায়। এ জন্য মানব সেবায় নিয়োজিত সকল নার্সদের রোগীদের সাথে ভাল আচরণ করতে। সেবার মানসিকতা ও আন্তরিকতা নিয়ে নার্সদের দায়িত্ব পালন করার আহবান জানান জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটি ।
ডা.মাজেদ আরো বলেন নার্সদের কঠোর পরিশ্রম, তাদের সেবা ছাড়া কোনো রোগীর সুস্থ হয়ে ওঠা কঠিন। আজ সেই পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা জানানোর দিন। নার্সরা করোনার সময়ও নিজের জীবনের কথা ভুলে শুধু অসহায়দের পাশে থেকেছেন। সেবা করতে গিয়ে করোনার সময় প্রাণও হারিয়েছেন বহু নার্স।আমাদের নার্সরা অদূর ভবিষ্যতেও নার্সিং পেশার রূপকার ইতালিয়ান নার্স ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেলের মতো সেবা দিয়ে যাবে বলে বিশ্বাস করি। ’
নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরে তথ্য মতে, সারাদেশে নিবন্ধিত নার্সের সংখ্যা ৭৬ হাজার ৫১৭ জন। এর মধ্যে সরকারি হাসপাতালগুলোতে কর্মরত নার্সের সংখ্যা ৪২ হাজার ৩৩০ জন। বাকিরা দেশের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত রয়েছেন। দেশে সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে মোট ৪২৯টি নার্সিং ইনস্টিটিউট রয়েছে।
এর মধ্যে সরকারি পর্যায়ে ১৩টি বিএসসি নার্সিং কলেজ, ৪৪টি ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউট ও একটি সরকারি পোস্টগ্যাজুয়েট কলেজ রয়েছে। আর বাংলাদেশে মোট ১ লাখ ২ হাজার ৯৯৭ জন নিবন্ধিত চিকিৎসকের বিপরীতে নিবন্ধিত নার্স রয়েছেন মাত্র ৭৬ হাজার ৫১৭ জন। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে চিকিৎসকের অনুপাতে বর্তমানে নার্স থাকা উচিত ৩ লাখ ৮ হাজার ৯৯১ জন।
কিন্তু দুঃখজনকভাবে বর্তমানে দেশে চিকিৎসকের অনুপাতে নার্সের ঘাটতি ২ লাখ ৩২ হাজার ৪৭৪ জন। সরকারি হাসপাতালে কর্মরত নার্সের সংখ্যা মাত্র ৪২ হাজার ৩৩০ জন। যা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই অপ্রতুল তাই জরুরি ভিত্তিতে দেশের স্বাস্থ্যখাতে নার্স সংকট সমাধানে সরকারিভাবে নার্স নিয়োগের জরুরি উদ্যোগ নিতে হবে এবং নার্সদের বিদ্যমান সকল সমস্যা সমাধানে সরকারকে জরুরি উদ্যোগ নেয়ার আহবান জানাচ্ছেন জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটি।
পত্রিকা একাত্তর / সাইফুল ইসলাম চৌধুরী