patrika71
ঢাকাসোমবার - ২৪ অক্টোবর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

৪৩ বছরে পা রাখলেন অভিনেত্রী লায়লা

বিনোদন ডেস্ক
অক্টোবর ২৪, ২০২২ ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

লায়লা হলেন একজন ভারতীয় অভিনেত্রী। তিনি তামিল, তেলুগু, মালয়ালম, কন্নড় ও হিন্দি ভাষার চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। আজ তার ৪৩তম জন্মদিন ২৪ অক্টোবর ১৯৮০ সালে জন্মগ্রহণ করেন।

লায়লা মুম্বইয়ে মডেলিং দিয়ে তার কর্মজীবন শুরু করেন। এই সময়ে কৌতুকাভিনেতা মেহমুদ তাকে বলিউডে পরিচয় করিয়ে দেন। তিনি দুশমন দুনিয়া কা (১৯৯৬) চলচ্চিত্র দিয়ে বলিউডে আগমন করেন। কিন্তু সালমান খান ও শাহরুখ খান অভিনয় করার পরও চলচ্চিত্রটি বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়।

এরপর তিনি এস. ভি. কৃষ্ণ রেড্ডি পরিচালিত ইগির পাবুরমা (১৯৯৭)-এ অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তেলুগু চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন। এরপর তিনি তামিল চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য প্রখ্যাত পরিচালকদের নিকট থেকে প্রস্তাব পেতে শুরু করেন।

এই সময়ে তিনি কে. এস. রবিকুমারের ধর্ম চক্করম ও পবিত্রনের কাদল পল্লী চলচ্চিত্রের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। ১৯৯৭ সালে পূজা কুমার ভিআইপি চলচ্চিত্রের প্রধান নারী চরিত্রে ফিরিয়ে দেওয়ার পর তিনি এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন।

যাই হোক, লায়লাকে যখন চলচ্চিত্রের প্রযোজক বলেন তার নাম পরিবর্তন করে পূজা রাখতে, কারণ চলচ্চিত্রের প্রস্তাবনায় পূজা নাম ছাপা হয়ে গেছে, এছাড়া তিনি জানতে পারেন যে এই চলচ্চিত্রে রম্ভা প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন যা তাকে জানানো হয়নি। ফলে লায়লা এই চলচ্চিত্রটি ত্যাগ করেন, কারণ তিনি চেয়েছিলেন তার তামিল চলচ্চিত্রে অভিষেক হবে একক নায়িকা হিসেবে।

২০০০ সালে তিনি প্রশান্তের বিপরীতে পার্থেন রাসিথেন এবং ২০০১ সালে অজিত কুমারের বিপরীতে দিনা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনি বালা পরিচালিত নন্দা (২০০১) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ তামিল অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ অর্জন করেন।একই বছর তিনি বিক্রমের বিপরীতে দিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

২০০৩ সালে তিনি পিতমগন চলচ্চিত্রে পুনরায় বিক্রমের বিপরীতে অভিনয় করেন। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ তামিল অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ অর্জন করেন এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে তামিলনাড়ু রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।

লায়লা এই সময়ে সাময়িক বিরতি নেন এবং মুম্বই ফিরে যান। তিনি ২০০৫ সালে তামিল চলচ্চিত্রে ফিরে আসেন এবং উল্লাম কেটকুমা চলচ্চিত্রে তার অভিনয় দর্শকদের সাড়া পায় এবং বক্স অফিসেও সফলতা লাভ করে। বিবাহের পরে তার অভিনীত শেষ চলচ্চিত্র ছিল অজিত কুমারের বিপরীতে ‘পরমশিবন (২০০৬)।

দীর্ঘ বিরতির পর তিনি পুনরায় তামিল বিনোদন শিল্পে ফিরে আসেন। প্রথমে তিনি ২০১৮ সালে আচি বাদাম দুধের বিজ্ঞাপন চিত্রে কাজ করেন। তিনি জি তামিল চ্যানেলের ডিজেডি জুনিয়র নৃত্য প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে সুধা চন্দ্রন ও স্নেহার সাথে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন।এছাড়া তিনি অ্যালিস চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে পুনরায় তামিল চলচ্চিত্রে ফিরে আসেন।

পত্রিকা একাত্তর / মাসুদ পারভেজ