প্রতি বছরের ন্যায় পালন করা হলো বারো আউলিয়া মেলা

স্টাফ রিপোর্টার | ঠাকুরগাঁও

স্টাফ রিপোর্টার | ঠাকুরগাঁও

১৪ মে, ২০২২, ৩ দিন আগে

প্রতি বছরের ন্যায় পালন করা হলো  বারো আউলিয়া মেলা
আজ শুক্রবার (১৩ মে) সকাল থেকে ঠাকুরগাঁও জেলার গোবিন্দ নগর এলাকায় বারো আউলিয়া নামক স্থানে এই মেলা শুরু হয়। বৈশাখ মাসের শেষ শুক্রবার বারো আউলিয়ার মেলাকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই হাজার হাজার ভক্ত ও দর্শনার্থীরা দূর দূরান্ত থেকে আসতে থাকে।
এতে দিগন্ত জোড়া খোলা মাঠ ও বারো আউলিয়ার পূণ্যভূমি মুখরিত হয়ে উঠে জনসমুদ্রে। ওরসকে কেন্দ্র করেই হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ হিন্দু-মুসলমানের সমাগম ঘটে মেলায়।
কেউ গরু, ছাগল, হাঁস, মুরগি নিয়ে আসেন মানত করতে। কেউ বা আসেন দশণার্থী হিসেবে। ভক্তরা বারো আউলিয়ার মাজার জিয়ারত করে তোবারক খান। দিনব্যাপী মেলায় ছোটদের খেলনা, নাগরদোলা, মৃৎশিল্প সামগ্রি, হরেক রকম খাবারের দোকান, বই খাতাসহ নানা জিনিসের পসরা বসে।
শুধু মুসলমানরাই নয় হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, সহ নানা ধর্মের মানুষেরাও দূর-দূরান্ত থেকে মাজার জিয়ারত করতে এসেছেন।
বারো আউলিয়াগণ হলেন, হেমায়েত আলী শাহ(রঃ), নিয়ামত উল্লাহ শাহ(রঃ), কেরামত আলী শাহ(রঃ), আজহার আলী শাহ(রঃ), হাকিম আলী শাহ(রঃ), মনসুর আলী শাহ(রঃ), মমিনুল শাহ(রঃ), শেখ গরীবুল্লাহ(রঃ), আমজাত আলী মোল্লা (রঃ), ফকিরউদ্দীন আখতার(রঃ), শাহ মোক্তার আলী(রঃ) ও শাহ অলিউল্লাহ(রঃ)।
বারো আউলিয়া মেলার খাদেমদের কাছ থেকে জানা যায়।এনারা ইসলাম প্রচার করতে উত্তরবঙ্গে এসেছিলেন, এবং এই স্থানে তারা কিছুদিন অবস্থান করেছেন। এখানে তেনাদের মুরিদগণ রয়েছেন। তাই এই ১২ জন আউলিয়া কেই কেন্দ্র করে প্রতিবছর এ জায়গায় বারআউলিয়া মেলা পালন করা হয়। এবং তারা ইসলাম প্রচার করতে করতে মৃত্যুবরণ করলে তাদেরকে পঞ্চগড়, আটোয়ারীতে সমাধিত করা হয়।
পত্রিকা একাত্তর / আব্দুল্লাহ আল সুমন