patrika71 Logo
ঢাকারবিবার , ২২ আগস্ট ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইভেন্ট
  9. ইসলাম
  10. কবিতা
  11. করোনাভাইরাস
  12. কৃষি
  13. খেলাধুলা
  14. চাকরী
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মাদকবিরোধী আন্দোলনে নেমেছেন ঠাকুরগাঁও পোর আওয়ামীলীগ

পত্রিকা একাত্তর ডেস্ক
আগস্ট ২২, ২০২১ ৩:৫১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ad

ঠাকুরগাঁও দুরামারি দক্ষিণ গোবিন্দ নগর এর সকল এলাকাবাসীকে সংঘবদ্ধ করে (সাঁওতাল পাড়া) এলাকার সামনে একত্রিত হন মাদকবিরোধী আন্দোলনে নেমেছেন ঠাকুরগাঁও পোর আওয়ামীলীগ এর সভাপতি একরামুল হক তিনি মাদক ব্যবসায়ী এলাকার কয়েকজন ব্যক্তি কে এই মাদক বন্ধ করার ব্যাপারে সচেতন করেন। তাদেরকে এই কথা বলেন যে মাদকের করালগ্রাসে ক্ষত-বিক্ষত আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এখনি যদি রুখে না দাঁড়ানো যায় তাহলে অন্ধকারে নিমজ্জিত হবে দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম।

সর্বনাশা নেশার চোরাস্রোতে তলিয়ে যেতে বসেছে আমাদের তরুণ সমাজ। মাদকাসক্তের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। চিন্তিত হয়ে পড়েছেন অভিভাবকরা, কিন্তু সমাধানের রাস্তা খুঁজে পাচ্ছেন না। মাদক পাচার এবং মাদকাসক্তির হার কমানোর জন্য সীমিত আকারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন সরকার। সরকারকে সম্ভাব্য সব রকমের সহায়তা দিচ্ছে জাতিসংঘ। তবে এ পাপের আগ্রাসন ঠেকানোর জন্য আজ জরুরি হয়ে পড়েছে সবার সম্মিলিত উদ্যোগ, মাদকের বিরূপ প্রভাব সম্পর্কে সবার মধ্যে সচেতনতা তৈরি।

মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টি ও মাদকের ভয়াল থাবা থেকে যুবসমাজকে দূরে রাখতে কাজ শুরু করে। মাদকবিরোধী আন্দোলন বছরজুড়ে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। অনুষ্ঠানসমূহের মধ্যে প্রতি মাসে মাদক পরামর্শ সহায়তা, গোলটেবিল, শোভাযাত্রা, মানববন্ধন, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, মাদকবিরোধী বন্ধুমেলা, কনসার্টসহ ২৬ জুন বিশ্ব মাদকমুক্ত দিবস উপলক্ষে সারা দেশে ব্যাপক আয়োজন। অনুষ্ঠানের পাশাপাশি মাদকসংক্রান্ত রিপোর্ট, ফিচার, বিজ্ঞাপন, সম্পাদকীয় ও চিঠিপত্র প্রকাশ করা হয়, যা মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করে।

তিনি আরো বলেন জারা আমরা এখানে উপস্থিত রয়েছি আমাদের পরিবারের কোনো সদস্য মাদকদ্রব্য গ্রহণ শুরু করছে কি না তা বোঝার জন্য কতগুলো আচরণগত পরিবর্তন খেয়াল করলেই বোঝা যাবে, যেমন –

  • হঠাত্ করেই স্বাভাবিক আচরণ পরিবর্তন আসতে পারে৷ অন্যমনস্ক থাকা, একা থাকতে পছন্দ করা৷

  • অস্থিরতা প্রকাশ, চিত্কার, চেঁচামেচি করা৷

  • অসময়ে ঘুমানো, ঝিমানো কিংবা হঠাত্ চুপ হয়ে যাওয়া ৷

  • কারণে-অকারণে মন খারাপ ব্যবহার করা এবং অসংলগ্ন ও অস্পষ্ট কথাবার্তা বলা ৷

  • কোথায় যায়, কার সঙ্গে থাকে – এসব বিষয়ে জানতে চাইলে বিরক্ত হওয়া, গোপন করা কিংবা মিথ্যা বলা ৷

  • ঘর অন্ধকার করে জোরে মিউজিক শোনা ৷

  • নির্জন স্থানে বিশেষত বাথরুম বা টয়লেটে আগের চেয়ে বেশি সময় কাটানো৷

  • রাত করে বাড়ি ফেরা, রাতজাগা, দেরিতে ঘুম থেকে ওঠা৷

  • হঠাত্ নতুন অপরিচিত বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে বেশি মেলামেশা করা ৷

  • বিভিন্ন অজুহাতে ঘন ঘন টাকা-পয়সা চাওয়া ৷

  • স্বাভাবিক খাবার-দাওয়া কমিয়ে দেওয়া৷

  • অভিভাবক এবং পরিচিতদের এড়িয়ে চলা ৷

  • স্বাভাবিক বিনোদন মাধ্যমে ক্রমশ আগ্রহ হারিয়ে ফেলা ৷

  • বাড়ির বিভিন্ন জায়গা থেকে ক্রমাগত টাকা-পয়সা ও মূল্যবান জিনিসপত্র হারিয়ে যাওয়া ৷

  • ঋণ করার প্রবণতা বেড়ে যাওয়া ৷

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি।