patrika71
ঢাকাশনিবার - ৫ নভেম্বর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নড়াইলে নির্বাচন পরবর্তি সহিংসতায় আহত ৩০, আটক ৮

জেলা প্রতিনিধি, নড়াইল
নভেম্বর ৫, ২০২২ ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পাঁচগ্রাম ইউপি নির্বাচনের পর প্রতিদ্বন্দ্বী দুই পক্ষের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ আটজনকে আটক করেছে। শুক্রবার (৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ইউনিয়নের মহিষখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কয়েকজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (২ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত পাঁচগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনে ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্যপদে সাখাওয়াত মন্ডল (টিউবওয়েল প্রতীক) ও বুলু শেখ (বল প্রতীক) নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ভোট গ্রহণের পর সাখাওয়াত মন্ডল (টিউবওয়েল প্রতীক) নির্বাচিত হন। এরপর বিজয় মিছিল করলে উভয় প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এ ঘটনায় পরাজিত সদস্য প্রার্থী বুলু শেখ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। নির্বাচনের দিন সংঘটিত এ সংঘর্ষের জের ধরে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে নবনির্বাচিত সদস্য সাখাওয়াত মন্ডলের সমর্থকদের সঙ্গে পরাজিত সদস্য প্রার্থী বুলু শেখের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে পরাজিত সদস্য প্রার্থী বুলু শেখ (৫০), রাণী বেগম (৫০), মুক্তি মন্ডল (৪৫), সিদ্দিক শেখ (৫৫), কামরুল শেখ (৪০), নুরু মন্ডল (৩৫), জিয়া মন্ডল (৩৫), সাফায়েত শেখ (৩২), লিপন শেখ (৪৩), মারুফ মন্ডল (৬০), পিটুল মিনা (৪০)-সহ প্রায় ৩০ জন আহত হন।

সংঘর্ষ চলাকালে মহিষখোলা গ্রামে নবনির্বাচিত সদস্য সাখাওয়াত মন্ডল, শামসুর রহমান ও ইসমাইল শেখের তিনটি বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়। এসময় হামলাকারী দুইটি মোটরসাইকেল, একটি ইজিবাইক ভাঙচুরসহ ব্যাপক তান্ডব চালায়। আহতদের মধ্যে কয়েকজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে। সংবাদ পেয়ে কালিয়া থানার পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

জানতে চাইলে কালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ তাসমীম আলম বলেন, এ ঘটনায় আটজনকে আটক করা হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। পরিস্থিতি বর্তমানে পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ঘটনাস্থলে
অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পত্রিকা একাত্তর / হাফিজুল নিলু