patrika71
ঢাকাবুধবার , ৭ জুন ২০২৩
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চট্টগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউদ্দিন হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

জেলা প্রতিনিধি, চট্রগ্রাম
জুন ৭, ২০২৩ ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

২০০৩ সালে চট্টগ্রামে রেল কর্মচারী বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউদ্দিন হত্যার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি হেলাল উদ্দিন প্রকাশ জিএস হেলালকে গ্রেপ্তার করেছে খুলশী থানা পুলিশ। হেলাল উদ্দিন বাঁশখালীর উত্তর জলদীর মোফাজ্জল আহাম্মদের ছেলে।

মঙ্গলবার (৬ জুন) দুপুর ২ টায় খুনি হেলালকে নগরীর লালদীঘি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানান খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সন্তোষ কুমার চাকমা। তিনি বলেন, ২০০৩ সালে সন্ত্রাসীদের হাতে খুন হয়েছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউদ্দিন। সেই হত্যা মামলায় হেলাল যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি। এতদিন ফেরারি ছিলো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা ৬ জুন বুধবার দুপুরে তাকে লালদীঘি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছি।

এক প্রশ্নের জবাবে ওসি সন্তোষ বলেন, হেলালের বিরুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধা শফি হত্যার সাজা পরোয়ানা ছাড়াও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও রয়েছে।

জানা গেছে, নগরের আদালতপাড়া থেকে দুপুরে তাকে আটক করেন খুলশী থানার কর্মকর্তা রাজিব। বেলা ২ টার দিকে তাকে থানায় নিয়ে আসা হয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর খাতায় প্রায় ১৭ বছর পলাতক থাকলেও বেশ বীরদর্পেই খুলশী এলাকায় ঘুরে বেড়াতো দুর্ধর্ষ এই সন্ত্রাসী। নগরের ১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর ও সাবেক যুবলীগ নেতা ওয়াসিম উদ্দিন চৌধুরীর ঘণিষ্ঠ অনুসারী হিসেবে জিএস হেলাল এলাকায় বিচরণ করতো বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তার বিরুদ্ধে রেলের যন্ত্রাংশ চুরি থেকে শুরু করে টেন্ডারে অংশ নেয়া ঠিকাদারদের ভয়ভীতি দেখানো, মারধর করা, রেলের জায়গা দখল করে সিএনজি অটোরিকশার গ্যারেজ, বাস-ট্রাক পার্কিং বাণিজ্য, চাঁদাবাজিসহ নানান অভিযোগ রয়েছে। প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে চলাফেরা করা এই হেলাল খুলশীতে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী হিসেবে বেশ পরিচিত। সর্বশেষ চসিকের ৯, ১০, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর তাসলিমা নুরজাহান রুবিকে অকথ্য গালিগালাজ ও হুমকি দেয়ার প্রেক্ষিতে তার বিরুদ্ধে খুলশী থানায় সাধারণ ডায়েরি দায়ের করেন এই মহিলা কাউন্সিলর।

এর আগে একই হত্যা মামলায় গত ৭ মে দুপুরে নগরীর খুলশী থানার আমবাগান এলাকা থেকে মাজহারুল ইসলাম ফরহাদ (৪৩) নামে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আরও এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছিল র‌্যাব। ফরহাদ নোয়াখালীর সুধারাম উপজেলায় মফিজ মিয়ার ছেলে। ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিলো ফরহাদ।

উল্লেখ্য, ২০০৩ সালের ১৪ জুন চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী থানার উত্তর আমবাগান এলাকায় রেলওয়ে স্টাফ কোয়ার্টারে ঢুকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয় বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউদ্দিনকে। তিনি রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের সহকারী প্রকৌশলী-১ কার্যালয়ে উচ্চমান সহকারী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

খুলশী থানা সূত্রে জানা গেছে, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ করায় ২০০৩ সালের ১৪ জুন নগরীর খুলশীর উত্তর আমবাগান রেলওয়ে কোয়ার্টারের ৩৬/এ বাসায় গুলি করে খুন করা হয় শফি উদ্দিনকে। শিপন, ইমন, হেলালসহ সন্ত্রাসীরা নৃশংসভাবে খুন করে তাকে। ওই সময় রক্তমাখা শার্ট গায়ে অস্ত্রসহ ধরা পড়েছিলো শিপন হাওলাদার।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মাহমুদা বেগম বাদী হয়ে খুলশী থানায় হত্যা মামলা করেন। ২০০৪ সালের ২৫ নভেম্বর চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল ২৩ জনের সাক্ষ্য নিয়ে এ হত্যা মামলায় শিপন ও ইমনকে ফাঁসি, সাত আসামিকে যাবজ্জীবন এবং চারজনকে খালাস দেন।

২০২২ সালের ৮ মার্চ রাতে কুমিল্লা কারাগারে ফাঁসি কার্যকর হয় শিপন হাওলাদার ও নাইমুল ইসলাম রিপন নামে দুই আসামির।

পত্রিকা একাত্তর/ চট্টগ্রাম