patrika71
ঢাকাবুধবার , ১০ মে ২০২৩
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বালিয়াডাঙ্গীতে ইয়াবাসহ আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার

উপজেলা প্রতিনিধি, রাণীশংকৈল
মে ১০, ২০২৩ ৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আল মনসুর (৪৪) কে ১৫০০ পিস ইয়াবাসহ আটক করেছে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার (০৯ মে) বিকাল ৫ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার ভানোর কাচকালি বাজারে ওই নেতার কীটনাশকের দোকানে অভিযান পরিচালনা করে ইয়াবা সহ তাকে আটক করা হয়।

আল মনসুর উপজেলার দুওসুও ইউনিয়েনের মাস্টার পাড়া গ্রামের মো. শফিউল ইসলাম ওরফে গোলাম রব্বানীর ছেলে।

ইয়াবাসহ আল মনসুরকে আটকের বিষয়টি মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিশ্চিত করেছেন ঠাকুরগাঁও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সৌমিক রায়।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মো. ফরহাদ আকন্দ জানান, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভানোর কাচকালি বাজারে আল মনসুরের দোকানে অভিযান পরিচালনা করি এসময় আল মনসুরের কাছ থেকে ১৫০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয় ও তাকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তার নামে মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।

২৭ সদস্যের কমিটিতে আল মনসুর বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. মাজহারুল ইসলাম সুজন।

অধ্যক্ষ মো. মাজহারুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘প্রায় একবছর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেসবুক)কে আল মসুরের মাদক সেবন ও বিক্রয়ের ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। আমি তখনি আ.লীগের মিটিংএ তাকে বহিষ্কার করা জন্য জেলার নেতাদের বলেছিলাম কিন্তু তারা তখন তাকে কেন বহিষ্কার করেনি তা আমার জানা নেই। এই ধরনের দু একজন লোকের জন্য দলের সুনাম নষ্ট হচ্ছে। আশা করি এবার এবিষয়ে জেলা কমিটি দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণের মধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।,

এবিষয়ে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায় বলেন, ‘ঘটনা সত্য হলে তাকে দল থেকে চিরতরে বহিষ্কার করা হবে। সে দলের সদস্য হয়েও থাকতে পারবে না।,

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী বলেন, বিষয়টি আমি শুনিনাই। তবে ঘটনা সত্য হলে আমরা তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ভাবে ব্যবস্থা নিবো।

পত্রিকা একাত্তর/ আনোয়ার হোসেন