patrika71 Logo
ঢাকাশুক্রবার , ১৯ নভেম্বর ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইভেন্ট
  9. ইসলাম
  10. কবিতা
  11. করোনাভাইরাস
  12. কৃষি
  13. খেলাধুলা
  14. চাকরী
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিশ্ব পুরুষ দিবস আজ

পত্রিকা একাত্তর ডেস্ক
নভেম্বর ১৯, ২০২১ ৮:৪৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ad

আজ বিশ্ব পুরুষ দিবস৷ নামটা শুনেই হাসি পাচ্ছে তাই না! পুরুষের আবার কিসের দিবস?

পুরুষদের সবসময় একটা কথা শুনতে হয়৷ পুরুষের নাকি কাঁদতে নেই৷ অথচ কান্নার কোনো লিঙ্গ নেই৷ জ্বি পুরুষদেরও কান্না পায়৷ তারা চিৎকার করে কাঁদতে পারে না লজ্জার ভয়ে৷ তারা দাঁতে দাঁত চেপে কাঁদে৷ তাদের কান্না কজনে শোনে?

সমাজে বলা হয় নারী নাকি অবলা৷ অথচ আমার মনে হয় পুরুষের মতন অবলা জাতি আর নেই৷ পুরুষের ছোটবেলা যতই হেলায় কাটুক না কেন, একটু বড় হলে এদের শুরু হয় সংগ্রামের জীবন৷ এরা আদো নিজের জন্যে পড়ালেখা করে কিনা আমি জানিনা৷ তাদের লক্ষ থাকে ভালো পড়াশোনা না করলে ভালো চাকরি মিলবে না৷ ভালো চাকরি না পেলে ভালো মেয়ে পাবে না৷ আর একজন বেকার পুরুষের জীবন কতটা নরক সেটা যারা বেকার কেবল তারাই উপলব্ধি করতে পারে৷

আরো পড়ুনঃ  জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৫ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

এক গবেষনায় দেখা দেখা গেছে প্রতি পাঁচজন পুরুষে দুই এর অধিক পুরুষ দুশ্চিন্তা রোগে আক্রান্ত এবং এই দুশ্চিন্তার মেইন কারণ হলো তার নিজের ক্যারিয়ার, নিজের সংসার সামলানো নিয়ে৷ একজন পুরুষকে পরিবার থেকে সমাজে সবসময় শুনতে হয়, ছেলে কি করে? কত বেতন পায়? সংসার সামলাতে পারবে তো?

যে কারণে বলা হয় একজন পুরুষ মাত্র ২০ বছর বাঁচে৷ তাকে গাধার সাথে তুলনা করা হয় কারণ তার বাকি ৩০ বছর গাধার মতন সংসার টানতে হয়৷

এইযে একজন পুরুষ ঘামে শার্ট ভিজিয়ে৷ পায়ের জুতা ক্ষয় করে৷ সকাল থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত যান্ত্রিক রোবট চালু রাখে৷ নিজের পরিবার সবকিছু রেখে বিদেশ আসে শুধু নিজের পরিবার ভালো থাকবে বলে৷ নিজের মা,বোন, বউ পুরো পরিবারটাকে বট গাছের মতন ছায়ায় আগলে রাখার পরেও দিনশেষে পুরুষকে শুনতে হয়

আরো পড়ুনঃ  ব্রিজ এবং রাস্তা না থাকায় ভোগান্তিতে এলাকাবাসী: সরিষাবাড়ি

পুরুষ কাপুরুষ

পুরুষ ধর্ষক

পুরুষ প্রতারক

পুরুষ বেঈমান

অথচ এই পুরুষই কারো দু মুঠো আহারের বাবা কিংবা ভাই৷ কারও অসুখে রাত জেগে পাশে বসে থাকা স্বামী৷ কারো একান্ত গল্প শোনার প্রেমিক৷ এদেরও যে আলাদা আবেগ, কান্না, দুঃখ কষ্ট আছে সেটা কজনে শুনতে চায়? পুরুষরা যে শারিরীক মানসিকভাবে নির্যাতন হয় সেটা কজনে জানে? কজনে বোঝে একজন পুরুষ কিভাবে পুরো সংসার নিজের পিঠে বয়ে চলে সকাল থেকে রাত৷

সমাজে নারীদের সাথে সাথে পুরুষ নির্যাতন বন্ধ হোক৷ পুরুষদের উপর সংসারের দায়ভার হালকা করা হোক৷ পুরুষ হলেই যে তাকে কামলা দিতে হবে এ নীতি বন্ধ হোক৷ সমাজ পরিবার নারী পুরুষ সবার৷ সুতারাং আলাদা না করে সবাই মিলে মিশে কাজ করুক৷ সবাইকে পুরুষ দিবসের শুভেচ্ছা।

মশিউর রহমান: বিশেষ প্রতিনিধি ।