patrika71 Logo
ঢাকাসোমবার , ২৩ আগস্ট ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইভেন্ট
  9. ইসলাম
  10. কবিতা
  11. করোনাভাইরাস
  12. কৃষি
  13. খেলাধুলা
  14. চাকরী
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চিত্রনায়িকা পরীমণির ন্যায়বিচার ও মুক্তির দাবিতে সমাবেশ

পত্রিকা একাত্তর ডেক্স
আগস্ট ২৩, ২০২১ ৬:৪৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ad

মাদকের মামলায় গ্রেপ্তার চিত্রনায়িকা পরীমণির জন্য ন্যায়বিচার চেয়ে সমাবেশ করেছেন দেশের চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকের নির্মাতা, অভিনয়শিল্পীসহ কলাকুশলীরা। শনিবার বিকেলে ঢাকার শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে ‘পরীমণির জন্য ন্যায়বিচার চাই’ ব্যানারে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় বক্তারা বলেন, ‘পরীমণিকে গ্রেপ্তার এবং একাধিকবার রিমান্ডে নেয়ার ঘটনার মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রে প্রশাসন যন্ত্রের ভয়াবহ চিত্র উন্মোচিত হচ্ছে। রাষ্ট্রের প্রশাসনিক ক্ষমতার অপপ্রয়োগের মাধ্যমে সাধারণ নাগরিকদের হয়রানি করার নজির তৈরি হয়েছে।
সমাবেশে নাট্যশিল্পী আজাদ আবুল কালাম বলেন, ‘পরীমণির গ্রেপ্তার এবং তাকে একের পর এক রিমান্ডের নেওয়ার মধ্য দিয়ে প্রশাসনের যে চরিত্র আমাদের সামনে উন্মোচিত হচ্ছে, সেটি ভবিষ্যতের জন্য ভয়াবহ হবে। প্রশাসনের অন্তরালে কারা আছেন, আমি জানি না। আমি নিশ্চিত ভীষণ শক্তিশালী একটি পক্ষ আছে যারা এগুলো করাচ্ছে। এটা ভীষণভাবে অমানবিক একটি প্রক্রিয়া।

চলচ্চিত্র নির্মাতা গিয়াসউদ্দিন সেলিম বলেন, ‘আইনের রক্ষক যারা তারাই তো আইন ভেঙেছেন। আমরা আইনের শাসন চাই। সাংবিধানিক অধিকারের সুরক্ষা চাই। পরীমণির গ্রেপ্তার প্রক্রিয়া থেকে শুরুর করে তিনবার রিমান্ডে নেওয়া, একই সঙ্গে মিডিয়া ট্রায়ালে জন্য উসকে দেওয়া-এটাই তো বেআইনি কাজ। পরীমণির জন্য আমরা ন্যায়বিচার চাই। ’

নাট্যজন ঝুনা চৌধুরী বলেন, ‘পরীমণিকে গ্রেপ্তার করার জন্য দেশের একটি এলিট ফোর্সকে বিশালভাবে তার বাড়িতে যেতে হয়েছিল। তাকে বললেই সে থানায় কিংবা ডিবি অফিসে যেতে পারতেন। চয়নিকা চৌধুরীও তার বক্তব্যে বলেছেন, তাকে বললেই তিনি যেতেন। কিন্তু যেভাবে পরীমণিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সেটি ক্ষমতার অপপ্রয়োগ। আমরা এর বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকবো। যে কোনো শিল্পীর প্রতি অবিচার ও অনাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকব। দু-এক দিনের মধ্যেই যদি পরিস্কার ধারণা না পাই তাহলে আমরা রাজপথে থেকেই সংগ্রামের মাধ্যমে এর একটা সুরাহা করব। ’

সমাবেশে শিল্পী-নির্মাতাদের মধ্যে মোহাম্মদ বারী, নোমান রবিন, গাজী মাহবুব, শহিদ উন নবী, অপরাজিতা সঙ্গীতা, মোস্তফা মনন’সহ আরও অনেকে বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, ‘পরীমণিকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে। সাধারণ মানুষের মনে নানা প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। পরীমণির সাথে যে আচরণ করা হচ্ছে, সেটা জনমনে আতঙ্ক তৈরি করেছে। পরীমণির জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করা হোক। ’

চিত্রনায়িকা রাজ রিপা বলেন আমি একজন নবীন শিল্পী। একজন শিল্পী হিসেবে শিল্পীর বিপদে পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। কারণ, আমি এই পরিবারের একজন সদস্য। শিল্পীর সাথে অন্যায় হবে, তা কখনো মেনে নেবো না। আমার অভিনীত নির্মাণাধীন ‘মুক্তি’ একটি প্রতিবাদী নারী কেন্দ্রিক সিনেমা। ‘মুক্তি’র প্রতিবাদী নারী হিসেবে পরীমণির মুক্তির দাবিতে এসেছি। শাহবাগে অবস্থিত বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর’র সামনে ‘শিল্পীর পাশে’ আয়োজিত নাগরিক সমাবেশে হাজির হয়ে একান্ত আলাপে এভাবেই বর্তমান দিনকাল’কে বললেন মডেল-অভিনয় শিল্পী রাজ রিপা।

তিনি আরো বলেন, ‘আমার মনে হয় পরীমণি অনেক বড় কোনো অন্যায় করেননি। তার সাথে এখন যা হচ্ছে, তা খুবই অন্যায়। সে যদি কোনো অন্যায় করে থাকে, তাহলে তার সঠিক বিচার হোক। দাবি একটাই, পরীমণির মুক্তি চাই। তার সাথে যা হচ্ছে, এখনও যদি শিল্পী সমাজ জাগ্রত না হয়, তাহলে এমন পরিস্থিতি হয়তো অদূর ভবিষ্যতে আমাদের সাথেও হবে বলে আশঙ্কা করছি।’

যোগ করে রাজ রিপা বলেন, ‘আদালতে পরীমণির মাটিতে পড়ে যাওয়ার ছবি দেখে এক মিনিট কান্না করেছি। ছবিটি দেখে আমার কাছে মনে হয়েছে, আমার বড় বোনকে টেনে নেওয়া হচ্ছে। বিষয়টি দেখে ভীষণ খারাপ লাগে। আজকের সমাবেশে অনেকেই আসতে না করেছে। তাদের কথা না শুনে, আমি আমার বড় বোনের মুক্তির দাবিতে সমাবেশে এসেছি। সবারই উচিত এই মুহূর্তে পরীমণি আপুর পাশে দাঁড়ানো। তিনি আমাদের পরিবারের অন্যতম একজন সদস্য। তার মতো একজন শিল্পীর আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে খুবই প্রয়োজন। প্রতিটি শিল্পীর বিপদের দিনে আমি পাশে দাঁড়াবো। এটা আমার নৈতিক দায়িত্ব।’

চিত্রনায়িকা প্রতিবেদনে, প্রতিবেদক বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ ছুন্নত আলী মল্লিক বলেন পাশে আছি স্মৃতি পরী মনি’র তিনি রাজ রিপার কথায় সহমত পোষণ জানিয়েছেন।

ছুন্নত মল্লিক: বিনোদন প্রতিবেদক।