patrika71 Logo
ঢাকামঙ্গলবার , ১৫ জুন ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. কবিতা
  10. করোনাভাইরাস
  11. কৃষি
  12. খেলাধুলা
  13. চাকরী
  14. জাতীয়
  15. টেকনোলজি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিকাশ এজেন্টের চুরি যাওয়া ৮লাখ টাকা উদ্ধার

পত্রিকা একাত্তর ডেক্স
জুন ১৫, ২০২১ ১১:৪৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের বিকাশ এজেন্টে এরশাদ মন্ডলের চুরি যাওয়া ৯লাখ ৭৫ হাজার টাকার মধ্যে ৮লাখ ৬ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ। শ্বশুর-জামাই পরিকল্পনা করে এ টাকাগুলো চুরি করেছিল বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

জানা যায়, আজ সোমবার (১৫-জুন) সকাল আনুমানিক ৯টার সময় নিজস্ব ব্যাবস্যা প্রতিষ্ঠান (মেঘলা টেলিকম) খোলেন এরশাদ মিয়া। এরশাদ গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কাটাবাড়ী ইউনিয়ননের মঞ্জু মিয়ার পুত্র। সে স্থানীয় বাগদা বাজারে মেঘলা টেলিকম নামে তার এক নিজস্ব ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান (দোকান) থেকে বিকাশে টাকা আদান-প্রদান ও ফ্লেক্সি লোডের ব্যাবসা করেন।

আজ সকালে এরশাদ প্রতিদিনের ন্যায় বাড়ি হতে বিকাশে লেনদেনের জন্য ৯ লাখ ৭৫ হাজার টাকা নিয়ে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেঘলা টেলিকমে গিয়ে উক্ত টাকা দোকানের ড্রয়ারে রাখে। এরপর সে দোকান ঘরের আশেপাশে পরিস্কার করতেছিল।

এসময় প্রতারক আয়েদ আলী শেখ (৬০) এসে এরশাদকে পাশে আরও ময়লা আছে বলেন,তখন এরশাদ প্রতারকের কৌশল না বুঝে ঐ উল্লেখ্যিত ময়লার দিয়ে এগিয়ে গেলে ঐ ফাঁকে আয়েদ আলী শেখ ড্রয়ারে থাকা টাকার ব্যাগটি নেয়। এসময় পাহারায় ছিল আয়েদ এর জামাই জালাল উদ্দীন। দুজনে নিরাপদে টাকার ব্যাগটি চুরি করে নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়।

এরপর এরশাদ ময়লা পরিস্কার করে দোকানের ভিতর গিয়ে ড্রয়ার খুলে দেখে টাকার ব্যাগটি নেই। তারপর এরশাদ তার দোকানে থাকা সিসি ক্যামেরার ফ্রুটেজ চেক করে দেখতে পায় এক বয়স্ক ব্যাক্তি (আয়েদ আলী) টাকার ব্যাগটি নিয়ে পূর্ব দিকে যাচ্ছিল। তখন এরশাদ তার পরিচিত লোকজন চতুর্দিকে ঐ ব্যাক্তিকে খুঁজতে থাকে। এমন্তাবস্থায় চোর কে না-পেয়ে থানায় খবর দিলে পুলিশ তৎপরতা শুরু করে। এর এক পর্যায়ে এরশাদের লোকজন দুপুর আনুমানিক ২ টার সময় শীবপুর ইউনিয়নের তরণীপাড়ায় ঐ বয়স্ক ব্যক্তি যার নাম (আয়েদ) তাকে আটক করে খবর দেয়।

এরপর থানা পুলিশ খবর পেয়ে এসআই মামুনের তত্বাবধানে একটি টিম তরণীপাড়া গিয়ে আসামি আয়াদ কে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে টাকা চুরির কথা স্বীকার করে।এসময় আয়েদ ও তার জামাই জালাল এর বাড়ি তল্লাশি করে ৮ লাখ ৬ টাকা উদ্ধার করে। জালাল পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মেহেদী হাসান জানান আসামিদ্বয়ের বিরুদ্ধে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি মামলা রুজু হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আয়েদ কে জিজ্ঞাসাবাদের নিমিত্তে রিমান্ড চাওয়া হবে এবং অপর আসামি কে গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

অভিযুক্ত আয়েদ আলী (৬০) শেখ উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের তরনীপাড়া গ্রামের মৃত ফারাজ আলীর পুত্র। পাহারায় থাকা জালাল উদ্দীন শিবপুর ইউনিয়নের ভিটা শাখইল গ্রামের খবর আলীর পুত্র। গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মেহেদী হাসান জানিয়েছেন এ প্রতারক দুই ব্যাক্তি সম্পর্কে আপন জামাই শ্বশুর।