patrika71 Logo
ঢাকাবুধবার , ১৬ জুন ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. কবিতা
  10. করোনাভাইরাস
  11. কৃষি
  12. খেলাধুলা
  13. চাকরী
  14. জাতীয়
  15. টেকনোলজি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

এইচএসসি’র ফরম পূরণের ফেরত টাকাও লুটপাটের অভিযোগ

পত্রিকা একাত্তর ডেক্স
জুন ১৬, ২০২১ ১২:৪৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

গৌরীপুর : ময়মনসিংহের গৌরীপুর মহিলা ডিগ্রী (অনার্স) কলেজে ২০২০সালে এইচএসসি ৩৭৩জন পরীক্ষার্থীর ফেরত টাকাও নানা অজুহাতে শিক্ষার্থীদের হাতে না দিয়ে লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে পরীক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে বিষয়টি তুলে ধরেন। তাদের অভিযোগ, ফরম ফিলাপের সময় সরকারের নির্ধারিত ফিসের চেয়েও নেয়া হয়েছে অতিরিক্ত ফি, করোনাকালীন দুর্যোগে না পড়িয়ে নেয়া হয়েছে বেতনসহ খাতে অর্থ।

শিক্ষা বোর্ডের সিদ্ধান্তনুযায়ী বিজ্ঞান বিভাগের নিয়মিত একজন শিক্ষার্থী সর্বমোট ১ হাজার ৬৫ টাকা ফেরত পাবেন। এর মধ্যে শিক্ষাবোর্ড দেবে ৪৮০ টাকা, কেন্দ্র দেবে ২২৫ টাকা। আট বিষয়ের ব্যবহারিকে ৪৫ টাকা করে মোট ৩৬০ টাকা। মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা শাখায় একজন নিয়মিত শিক্ষার্থী পাবেন মোট ৬২৫ টাকা।

এদিকে গৌরীপুর মহিলা ডিগ্রী (অনার্স) কলেজে মঙ্গলবার এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের টাকা ফেরত নেয়ার জন্য নোটিশ প্রদান করেন। বিজ্ঞপ্তির প্রেক্ষিতে বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থীরা টাকা নিতে আসলে তাদের হাতে ৪৮০টাকা নিতে বলে। বিক্ষুব্দ পরীক্ষার্থীরা টাকা না নিয়েই ফেরত চলে যায়। তাসলিমা আক্তার সাথী জানায়, আমরা যখন ফরম ফিলাপ করেছি, তখন বেশি দিতে হয়েছে আর এখন নিতে আসছি কম দেয়া হচ্ছে।

তাই টাকা ফেরত না নিয়েই আসছি। বিক্ষুব্দ শিক্ষার্থীরা জানায়, টিটু স্যার আমাদের সঙ্গে ধমক দিয়ে বলেছে ‘টাকা না নিলে যাও কার কাছে যাবা, যাও’! এরপরে তারা অভিযোগ জানাতে দলবেঁধে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসান মারুফ এর কার্যালয়ে যায়। মৌখিকভাবে তাদের অভিযোগ প্রদান করেন। ইউএনও হাসান মারুফ জানান, পরীক্ষার্থীরা এসেছিলো, তাদের অভিযোগ শুনেছি। সরকারের নির্ধারিত টাকার চেয়ে কম টাকা দেয়ার কোন সুযোগ নেই। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এইচএসসি ফরম ফিলাপে অতিরিক্ত ফি নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন কলেজের অধ্যক্ষ মো. রুহুল আমিন। তিনি বলেন, ব্যবহারিক পরীক্ষার ফিস ও কেন্দ্র ফির টাকা খরচ হয়ে গেছে। কলেজের ফাণ্ডের টাকা নাই। পরবর্তীতে দিয়ে দেয়া হবে। এখাতের টাকা অন্যখাতে খরচ প্রসঙ্গে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।