patrika71
ঢাকাশনিবার - ১২ নভেম্বর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বাল‍্যবিবাহ প্রতিরোধ বিষয়ক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

উপজেলা প্রতিনিধি, মনিরামপুর
নভেম্বর ১২, ২০২২ ১০:৫০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আজ ১২/১১/২০২২ তারিখ রোজ শনিবার মনোহরপুর শেয়ার বাংলাদেশ জিইপি শিক্ষাকেন্দ্রে, মনোহরপুর জিইপি শিক্ষাকেন্দ্রের সকল ছাত্রীদের বাবাদের নিয়ে বাল‍্যবিবাহ প্রতিরোধ বিষয়ক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন মিঃ ফ্রান্সিস দাস, ফিল্ড ম‍্যানেজার”শেয়ার বাংলাদেশ” -জিইপি। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মোঃ কবির হোসাইন -উপজেলা নির্বাহী অফিসার, মনিরামপুর, যশোর।উনাদেরকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরন করে নেন জিইপি শিক্ষাকেন্দ্রেরদ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী আখি আক্তার ও মাছুরা খাতুন ও অনন্য ছাত্রী বৃন্দ্র বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এস এম আক্তার ফারুক মিন্টু- চেয়ারম্যান ১৭নং মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদ, মনিরামপুর, যশোর।

মোঃ ইউনুচ আলী মোল্ল‍্যা- প্রধান শিক্ষক মনোহরপুর মাধ্যমিক বিদ‍্যালয়। মোঃ মতিয়ার রহমান – সুপার কুমারঘাটা দাখিল মাদ্রাসা। মোস্তফা গাজী – ইউপি সদস্য ০৭নং ওয়ার্ড ১৭নং মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদ। মনজুয়ারা খাতুন -সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য ৪,৫,৬নং ওয়ার্ড ১৭নং মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদ। হাসিনা খাতুন – সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য ৭,৮,৯নং ওয়ার্ড ১৭নং মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদ, মনিরামপুর, যশোর। বিশেষ অতিথি হিসাবে আরও উপস্থিত ছিলেন লিপি মল্লিক, এরিয়া কো-অর্ডিনেটর”শেয়ার বাংলাদেশ “-জিইপি।

মোঃ বেলাল হোসেন- এডুকেশন অফিসার “শেয়ার বাংলাদেশ” -জিইপি।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পাবলিক রিলেশন কো অরডিনেটর মিঃশিবুপদ দাস এবং রিলেশন অফিসার  মারিফুল ইসলাম।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মনোহরপুর জিইপি শিক্ষাকেন্দ্রের সকল শিক্ষক শিক্ষিকা মন্ডলী।প্রধান অতিথি উনার বক্তব্যে বলেন সরকার বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে। সরকারি এবং বেসরকারি সংস্থা গুলোও একযোগে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে যাচ্ছে। মেয়েদের সামাজিক  নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কর্মস্থল, রাস্তাঘাট ও গণপরিবহন নারীবান্ধব ও যৌন হয়রানি মুক্ত করতে হবে। স্বল্পশিক্ষিত ও শিক্ষা থেকে ঝরে পড়ার পর মেয়েরা যেন বেশি করে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ এর আওতায় আসতে পারে সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে। সর্বোপরি  আমাদের প্রত্যেকের অবস্থান থেকে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে উদ্যোগ নিতে হবে।১৭ নং মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস,এম,আক্তার ফারুক মিন্টু বলেন তিনি তার বক্তব্যে বাল্য বিয়ে ও তার ক্ষতিকর দিক ও তার আইনত সাজা সম্পর্কে অভিভাবক গন কে অবগত করেন।

পত্রিকা একাত্তর/কে,এম,মোজাপ্ফার হুসাঈন