patrika71
ঢাকাসোমবার - ৩১ অক্টোবর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

উত্তাল বঙ্গোপসাগরে ৪১ মাছ ধরা ট্রলারসহ ৪শ জেলে নিখোঁজ

ডেস্ক নিউজ
অক্টোবর ৩১, ২০২২ ৯:৩৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বরগুনার পাথরঘাটা থেকে দক্ষিন বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের কারনে উত্তাল সাগরে মাছ শিকারে গিয়ে ৪১ ট্রলারসহ প্রায় ৪শ জেলে নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে। শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে নিখোঁজ ট্রলার মালিকদের বরাত দিয়ে বরগুনা জেলা মৎস্যজীবি ট্রলার মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মো. মাসুম মিয়া এ তথ্য নিশ্চিৎ করেছেন।



এর আগে শুক্রবার সকাল ৯ টার দিকে বরগুনার পাথরঘাটা পৌরশহরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সুজন হাওলাদারের মালিকানাধীন এফবি হাওলাদার নামের একটি ট্ররার ডুবির ঘটনা ঘটলেও তাদের ১৭ জেলেকে অন্য একটি ট্রলার উদ্ধার করে পাথরঘাটা বিএফডিসি ঘাটে নিয়ে এসেছে।



এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ট্রলার মালিক, ট্রলার ও জেলেদের নাম জানা যায়নি।মো. মাসুম মিয়া জানান, কয়েকদিন আগে একটি নিম্বচাপ শেষ হয়েছে, এর পরেই উপকুলের জেলেরা তাদের ট্রলারে রসদ সামগ্রী নিয়ে মাছ শিকারের জন্য গভীর সমুদ্রে ওয়ানা দিয়ে যায়।

আবারো নিম্নচাপ শুরু হলে সাগর উত্তাল হয়ে পড়ায় গত বৃহস্পতিবার থেকে এ পর্যন্ত বিভিন্ন উপজেলার কয়েকটি ট্ররার ডুবির ঘটনা ঘটলেও এখন পর্যন্ত পাথরঘাটা উপজেলায় ৩০ টি এবং মহিপুরে ১১ টি মাছধরা ট্রলার নিখোঁজ রয়েছে। এফবি হাওলাদার ট্রলারটি ডুবে গেলেও তাদের জেলেদের উদ্ধার করা হয়েছে।



তিনি আরো জানান, ঘটনার সাথে সাথেই কোস্টগার্ডসহ সরকারী সপ্তর সমূহকে জানানো হয়েছে এবং বরগুনা জেলা মৎস্যজীবি ট্রলার মালিক সমিতির পক্ষ থেকে জেলেদের সন্ধানে বেশ কয়েকটি ট্রলার উদ্ধার অভিযানে কাজ করে যাচ্ছে। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে নিখোঁজ ট্রলার ও জেলেগুলো সমুদ্রে ডুবে যেতে পারে।




বরগুনা জেলা ফিশিং ট্রলার শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. দুলাল মাস্টার বলেন, হঠাৎ করে নি¤œচাপ শুরু হলে এফবি হাওলাদার নামের একটি ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে। তাদের ১৭ জেলে ইতমধ্যে পাথরঘাটা আনছার খানের মালিকানাধীন ট্রলারের মাঝি ইসমাইল হোসেন ডুবে যাওয়া ট্রলারের জেলেদের ভাসতে দেখে উদ্ধার করে নিয়ে এসছে।




উদ্ধারকৃত জেলেরা সুস্থ আছেন। এখন পর্যন্ত ডুবে যাওয়া ট্রলারের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে হঠাৎ এই প্রচন্ড ঝড়ের কবলে পরে নিখোঁজ ট্রলার গুলো ডুবে যাওয়ার সম্বাবনা রয়েছে বলেও জানান তিনি।




কোস্টগার্ড দক্ষিন জোনের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কেএম সাফিউল কিঞ্জল জানান, গত ২ দিন ধরে নিম্নচাপের কারনে সাগর উত্তাল থাকায় অনেক ট্রলার ডুবি ও নিখোজের ঘটনা শুনেছি। এ খবর পাওয়ার সাথে সাথেই কোস্টগার্ডের পক্ষ থেকে পাথরঘাটা, হাতিয়া, চরফ্যাশন, নিজামপুর, পায়রা পোর্টসহ মোট ৬ টি টিম গভীর সমুদ্রে জেলেদের উদ্ধার অভিযানে রয়েছে এবং গতকালও ছিল।

আবারও আজ শনিবার সকাল ৮ টা থেকে এ উদ্ধার অভিযান শুরু হয়েছে যা সারাদিন চলমান থাকবে। তিনি আরো জানান, ট্রলার মালিক সমিতি থেকে বলা হয়েছে ৪১ টি ট্রলা নিখোঁজ রয়েছে, তবে আমরা কাজ করতেছি ট্রলারের নাম সংগ্রহ করার। আমাদের কাছে নাম আসতেছে। তবে এখন পর্যন্ত মোট ১৮২ জন নিখোঁজ জেলের সংখ্যা তাদের হাতে এসেছে।



পত্রিকাএকাত্তর /তাওহিদুল ইসলাম