patrika71
ঢাকাশুক্রবার - ১৪ অক্টোবর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

র‍্যাব নয়, সরকারকেই সেংশন দেয়া উচিৎ: মির্জা ফখরুল

উপজেলা প্রতিনিধি, রাণীশংকৈল
অক্টোবর ১৪, ২০২২ ৫:১০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

গুম, হত্যা মানবাধিকার লঙ্ঘন করার কারনে র‍্যাবের উপর সেংশন দেওয়া হয়েছে। র‍্যাব তো বাংলাদেশ রাষ্ট্রের একটি প্রতিষ্ঠান বলে এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সরকার দ্বারা র‍্যাব নিয়ন্ত্রিত। সরকারেই তাদের মালিক, হুকুম দাতা।

র‍্যাব তো কাজেই করতে পারে না প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ছাড়া। যদি সেংশন দিতেই হয় তাহলে সরকার বা প্রধানমন্ত্রীর  উপরে দেওয়া উচিৎ। শুক্রবার (১৪অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় ঠাকুরগাঁও জেলা শহরের কালিবাড়ি নিজ বাসবভনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাববে তিনি এ কথা বলেন।

নির্বাচন নিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, আগামী নির্বাচন যদি আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে হয় তাহলে বিএনপি সেই নির্বাচনে অংশ নিবে না। এবং সেই নির্বাচন আমরা করতে দিবো না। নির্বাচন হলে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বা অন্তর্বর্তীকালীন সরকারেই মাধ্যমে নির্বাচন হবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আমরা আন্দোলন করছি। সরকার আমাদের নেতাকর্মীদের নামে মামলা দিয়ে গ্রেফতার করছে। নতুন করে আরো ২৫ হাজার নেতা কর্মীর নামে মামলা দেওয়া হয়েছে। মামলা হামলা যাই হউক এবার আর মাঠ ছাড়ছি না,  জনগন মাঠ ছাড়বে না।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি একটি লিবারেল ডেমোক্রেসি পার্টি। তারা রাজনীতি করে। সংবিধানের মধ্যে যে নিয়ম গুলো আছে তা মেনে রাজনীতি করে। নির্বাচনের মাধ্যমে সংসদে যাওয়ার জন্য রাজনীতি করে। এবং তারা বিশ্বাস করে সভা, সমাবেশ, কথা বলার স্বাধীনতা, লেখার স্বাধীনতা, সংগঠনের স্বাধীনতা এগুলোতে  ইনসিওর দেয়।

কিন্তু সেই পরিবেশ নেই। দেশে এখন একটা একনায়কন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে। একথা গুলোতে আগে আমরা বলতাম। তাদের যে এখন সহযোগি দল জাতীয় পার্টি তার প্রধান জিএম কাদের ও বলছে বাংলাদেশে কোন গণতন্ত্র নেই। একটি একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সভাপতি তৈয়মুর রহমান, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ সহ বিএনপি’র অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

পত্রিকা একাত্তর / আনোয়ার হোসেন আকাশ