patrika71 Logo
ঢাকাশনিবার , ১২ জুন ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. কবিতা
  10. করোনাভাইরাস
  11. কৃষি
  12. খেলাধুলা
  13. চাকরী
  14. জাতীয়
  15. টেকনোলজি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মানব সেবায় দৃষ্টান্ত স্থাপন : পৌর মেয়র

পত্রিকা একাত্তর ডেক্স
জুন ১২, ২০২১ ৭:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মোঃ নাসিরুল ইসলাম : পিতার কুলখানি পরিবর্তে ব্ল্যাড ক্যান্সারে আক্রান্ত কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের দর্শন বিভাগের প্রভাষক মোঃ শাহাদৎ হোসেনের চিকিৎসায় ১ লক্ষ টাকা দিয়ে মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন কুড়িগ্রাম পৌর কাজিউল ইসলামের পরিবার। মানবিক সেবায় পৌর মেয়রের এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ সমাজে ভিন্ন নজির স্থাপন করল। এই মানবিক কাজের জন্য সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল কুড়িগ্রাম পৌর মেয়র কাজিউল ইসলাম।

পৌর মেয়রের ভাই এডভোকেট আমিনুল ইসলাম বলেন, আমার পিতা গত ৬ জুন মৃত্যু বরণ করেন। নামাজে জানাজার সময় আমার বড় ভাই পৌর মেয়র কাজিউল ইসলাম পিতার (সাতদিনের) আনুষ্ঠানিকতার পরিবর্তে ব্ল্যাড ক্যান্সারে আক্রান্ত প্রভাষক শাহাদৎ হোসনের চিকিৎসার জন্য ১ লক্ষ টাকা অনুদানের ঘোষণা দেন।

এরই প্রেক্ষিতে এই মানবিক কাজটির জন্য আমার পরিবার এগিয়ে এসেছেন। সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে অসহায় শিক্ষকের চিকিৎসায় এগিয়ে আসার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

নগদ ১ লক্ষ টাকা গ্রহণ করেন কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল মান্নান, উপাধ্যক্ষ মীর্জা নাসির। নগদ টাকা প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন-পৌর মেয়র কাজিউল ইসলামের সাত ভাই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ সিরাজুল ইসলাম, মোঃ সহিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ বিমানের ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মমিনুল ইসলাম, এডভোকেট আমিনুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা লুৎফর রহমান গেন্দু, বিশিষ্ট ঠিকাদার মঞ্জুরুল ইসলাম রাজা ও বোন চাকুরীজীবি মোছাঃ কামরুন নাহার পুতুল প্রমুখ।

উল্লেখ্য, কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের দর্শন বিভাগের প্রভাষক শাহাদৎ হোসেন (২৯) দুরারোগ্য ব্ল্যাড ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত। বর্তমানে সংকটাপন্ন মুহুর্তে এই মেধাবী শিক্ষকের উন্নত চিকিৎসার জন্য ৮০ লাখ টাকা প্রয়োজন।

বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে হেমাটোলজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আব্দুল আজিজ ও রেডিওলোজী বিভাগের চিকিৎসক ডা. সৈয়দা শওকত জেনির তত্তাবধানে রয়েছেন।

কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মীর্জা নাসির উদ্দিন জানান, রংপুর সদরের মমিনপুর গ্রামের বর্গাচাষি আনারুল হকের দুই মেয়ে এবং এক ছেলে সন্তানের মধ্যে প্রভাষক শাহাদৎ হোসেন সবার ছোট এবং সদ্য বিবাহিত সংসারে একমাত্র উপার্জনক্ষম।

তিনি ৩৭তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের একজন সদস্য। প্রভাষক শাহাদৎ হোসেনের চিকিৎসায় অর্থ সংগ্রহে বর্তমানে সোনালী ব্যাংক, কুড়িগ্রাম শাখায় ‘শাহাদৎ হোসেন চিকিৎসা সহায়তা তহবিল’ নামে একটি হিসাব খোলা হয়েছে। যা কলেজের অধ্যক্ষসহ আরও দুই জন কর্মকর্তাকে সিগনেটরী রাখা হয়েছে।

তাকে সহযোগিতার জন্য হিসাব নম্বর ৫২০৮৪০১০২৮৫২৪, রাউটিং নম্বর ২০০৪৯০৪০৭, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, কুড়িগ্রাম শাখা। বিকাশ নম্বর ০১৭১৬৫৮৩৩৬৯, নগদ ০১৭১৬৫৮৩৩৬৯ নম্বরে সহায়তা চাওয়া হয়েছে।