আশুলিয়ায় গৃহকর্মী নির্যাতন, গ্রেপ্তার গৃহকর্ত্রী

সাভারের আশুলিয়ায় এক গৃহকর্মী (১৭) কে অমানুষিক নির্যাতনের মামলায় অভিযুক্ত গৃহকর্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে আশুলিয়া পুলিশ। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

গত শুক্রবার দুপুরে গৃহকর্ত্রীকে গ্রেফতার করে আশুলিয়া থানা থেকে আদালতে পাঠানো হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। গ্রেফতারকৃত ববিতা আক্তার মুক্তা (২৯) বাগেরহাট জেলার মংলা থানার কচুবুনিয়া সিকদার বাড়ি এলাকার মৃত ইউনুছ আলী সিকদারের মেয়ে।

বর্তমানে আশুলিয়ার পূর্ব ডেন্ডাবর এলাকায় বসবাস করে আসছিলেন। ভুক্তভোগী গৃহকর্মীর গ্রামের বাড়ি একই স্থানে। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী গৃহকর্মী গত ৭-৮ বছর ধরে অভিযুক্ত ববিতা আক্তার মুক্তার বাসায় কাজ করে আসছিল।

ছোট-খাটো বিষয়ে বিভিন্ন সময় তাকে গালিগালাজ সহ খুনতি, হাতুড়ি ও প্লাস দিয়ে নির্যাতন করা হতো। ভুক্তভুগী কিশোরীকে গত ৬ মাস আগে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মুখের ৩টি দাঁত ভেঙে দিয়েছে। সবশেষ গত ১৪ সেপ্টেম্বর খুনতি দিয়ে বেধড়ক মারধর করে আহত করে।

পরে গত বৃহস্পতিবার থানায় এসে ভুক্তভোগী জানালে তাকে ধামরাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ভুক্তভোগীর বাবা গ্রাম থেকে এসে বাদী হয়ে মুক্তাকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ভুক্তভোগীর দুলাভাই সাদ্দাম হোসেন মুঠোফোনে বলেন, আমার শ্যালিকাকে অনেক নির্যাতন করা হয়েছে।

এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আল মামুন কবির বলেন, তদন্ত করে নির্যাতনের সত্যতা পেয়েছি। ভুক্তভোগীর সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। গ্রেপ্তার আসামিকে আদালতে পাঠানো হলে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পত্রিকাএকাত্তর / সোহাগ হাওলাদার

সম্পর্কিত নিউজ

Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ নিউজ