patrika71
ঢাকাবৃহস্পতিবার - ১৫ ডিসেম্বর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চলাচলের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা, প্রতিবাদ করায় মারধর!

নিজস্ব প্রতিনিধি
ডিসেম্বর ১৫, ২০২২ ৩:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

গঙ্গাচড়ার নোহালীতে প্রতিবেশীর দেওয়া বেড়ায় ২৫টি পরিবারের চলাচলের রাস্তা বন্ধ হয়েছে। বসতবাড়িতে প্রবেশের পথ বন্ধ করার প্রতিবাদ জানানোয় গৃহকর্তা মাইদুল ইসলামকে (৩৫) রাস্তা আটকিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন আবু বক্কর ও তার পরিবারের লোকেরা। নাজমুল, সুলতানা ও লিয়াকত আলীসহ ২৫টি পরিবারের সন্তানদের বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসা বন্ধ হতে চলেছে।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে ২৫টি পরিবার নোহালীর কুমারপাড়া গ্রামের মাঝাপাড়ায় বসবাস করে আসছেন। কয়েকদিন আগে মাঝাপাড়া প্রবেশের প্রধান সড়কের সংযুক্ত কাঁচা রাস্তাটিতে গাছের গুড়ি, রাস্তার মাঝে গর্ত খুড়ে ও বাঁশ পুঁতে পরিবারগুলোর বের হওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দেয় স্থানীয় আবু বক্কর ও আমিনুর রহমান।

নিরুপায় হয়ে আবু বক্করের অমানবিক কাজের প্রতিবাদ করায় নাজমুল, লিয়াকত আলী, জাফর, সুলতানা, আইনুল ও ফয়জুল ইসলামের ওপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায় আবু বক্কর ও তার সহযোগী আমিনুর রহমানসহ বেশ কয়েকজন। একপর্যায়ে তাদের উভয়ের মধ্যেই ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেছে।

সুলতানার স্কুলপড়ুয়া ছেলে বলেন, চলাচলের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হওয়ায় আমার স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়েছে। প্রাইভেট পড়তেও যেতে পারছি না।

স্থানীয় বাসিন্দা ফয়জুল ইসলাম বলেন, বসতবাড়ির রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া অন্যায়, অমানবিক। বিষয়টি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। এব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ প্রয়োজন বলেও মত দেন ফয়জুল ইসলাম।

একই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন আরেক প্রতিবেশী জাকারিয়া। তিনি বলেন, বসতবাড়ির রাস্তা বন্ধ করায় পরিবারগুলো অসহায় অবস্থায় আছে। এটা মেনে নেওয়া যায় না। সত্যিই অমানবিক।

বিষয়টিকে এলকাবাসী অমানবিক বললেও চলাচলের রাস্তা বন্ধে জড়িতরা বলছে নিজ জমিতে কি করবেন সেটি তাদের বিষয়।

চলাচলের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির বিষয়ে নোহালী ইউপি সদস্য জাদু মিয়া, শফিকুল ইসলাম ও কুদ্দুস আলী গ্রাম্য সালিসে বিষয়টির সমাধান করার আশ্বাস দেন।

এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে দোষীদের আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়া হবে বলে জানায় গঙ্গাচড়া মডেল থানার এএসআই আব্দুল লতিফ।

পত্রিকা একাত্তর/ সানজিম মিয়া