patrika71
ঢাকামঙ্গলবার - ২৯ নভেম্বর ২০২২
  1. অনুষ্ঠান
  2. অনুসন্ধানী
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আবহাওয়া
  7. ইসলাম
  8. কবিতা
  9. কৃষি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. জবস
  13. জাতীয়
  14. ট্যুরিজম
  15. প্রজন্ম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নাচোলে প্রতারক বাবলু গ্রেফতার

উপজেলা প্রতিনিধি, নাচোল
নভেম্বর ২৯, ২০২২ ৫:০৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলের প্রচারক বাবলুকে গ্রেফতার করেছে নাচোল থানা পুলিশ।

নাচোল থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দরবেশপুর গ্রামের জনৈক মোশারফ হোসেনের ৮ শতাংশ ক্রয়কৃত জমি রয়েছে নাসিরাবাদ দুলাহার মোড়ে। প্রতারক বাবলু মোশারফ হোসেনের সেই জায়গা গত মাসে রাতের আধারে জবড় দখল করে স্থাপনা নির্মান করে। পরে মোশারফ হোসেন তার জায়গা কেন দখল করলো প্রতারক বাবলু ? এমন প্রশ্নের জবাবে বাবলু জানায় এখন এটা আমার জায়গা। তবে দুই লক্ষ টাকা চাঁদা দিলে উক্ত জায়গা দখল ছেড়ে দিবো।

বাবলু ভুক্তভোগি মোশারফ হোসেনকে আরো বলেন ডিসি, ইউএনও আমার হাতে রয়েছে। চাঁদা না দিলে তোর জায়গা কোন দিনই দখল পাবি না। ঘটনার এক পর্যায়ে মোশারফ হোসেন বাবলুকে চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে প্রতারক বাবলু গত মাসে উক্ত জায়গায় আবার ও পাকা স্থাপনা নির্মান শুরু করলে মোশারফ হোসেন বাঁধা দিতে গেলে বাবলু দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র ও ভাড়াটে সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে মোশারফ হোসেনের উপর আক্রমন করে জখম করে।

পরে মোশারফ হোসেন নাচোল থানায় এই বাবলুর বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। গত রোববার নাচোল থানার এস আই সোহেল রানা মোশারফ হোসেনের সেই মামলায় বাবলু ওরফে ডিসি বাবলুকে গ্রেপ্তার করেন। প্রতারক বাবলুর বিরুদ্ধে নাচোল থানায় প্রায় চার/পাঁচটি মামলা রয়েছে।

নাচোল থানার ওসি মিন্টু রহমান জানান,ডিসি বাবলু (বাবলু) একজন প্রতারক।তার নামে নাচোল থানায় ও সদর থানায় ধর্ষণ, চাঁদাবাজি, প্রতারণা ও জবড় দখলের একাধিক মামলা রয়েছে। ডিসির নাম ব্যবহার করে সে এলাকায় নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়তো। ওসি আরো বলেন,বাবলু কে সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বাবলু থেকে ডিসি বাবলু সে কিভাবো হলো এলাকায় ডিসি বাবলু না বললে তাকে কেউ চিনেন না। তবে অনেক লোকই হয়তো মনে করে ডিসি বাবলু আবার কে! ডিসি বাবলু হচ্ছে একজন ধর্ষক, চাঁদাবাজ ও প্রতারক। ডিসির নাম ভাঙ্গিয়ে সাধারণ মানুষ কে হয়রানি করতে করতে বাবলু হয়ে যায় জনগণের কাছে ডিসি বাবলু। উপজেলার সরকারি প্রতিটি দপ্তরে বাবলু নিজেকে ডিসি বাবলু পরিচয় দিয়ে কর্মকর্তা ও সাধারণ মানুষদের ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন অবৈধ সুযোগ সুবিধা গ্রহন করতো।

পত্রিকা একাত্তর/ শাহাদাত হোসেন