patrika71 Logo
ঢাকাশুক্রবার , ১২ নভেম্বর ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইভেন্ট
  9. ইসলাম
  10. কবিতা
  11. করোনাভাইরাস
  12. কৃষি
  13. খেলাধুলা
  14. চাকরী
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সাংবাদিকের বিরুদ্ধে প্রবাসীর স্ত্রীর দশ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ

পত্রিকা একাত্তর ডেস্ক
নভেম্বর ১২, ২০২১ ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ad

বরগুনার বেতাগীতে শফিকুল ইসলাম ইরান নামে এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় গত বুধবার (১০ নভেম্বর) সৌদি প্রবাসী সুলতান হাওলাদারের স্ত্রী খাদিজা বেগম আইরিন নামে ভুক্তভোগী গৃহবধূ ওই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বেতাগী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা’র কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযুক্ত মো. শফিকুল ইসলাম ইরান (২৮) দৈনিক যুগান্তরের বেতাগী উপজেলা প্রতিনিধি, অপর অভিযুক্তরা হলেন, ইরানের আপন বড় ভাই মো. জাহিদ হোসেন কিরণ (৩৫) এবং পিতা মো. শাহ আলম রাঢ়ি (৬৫)। তাদের বিরুদ্ধে সরকারি অনুদানে একটি প্রজেক্টে অংশীদার করার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ করেন, খাদিজা বেগম আইরিন।

বরগুনার বেতাগী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অভিযোগটির বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্তের আশ্বাস দেন।

অভিযোগের বিবরণে জানা গেছে, সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম ইরান তার মেঝো ভাই এবং পিতার যোগসাজশে ” দক্ষিণ বাংলা মশ ও পশু পালন লিঃ” নামে তাদের বাড়িতে ভুয়া একটি প্রজেক্ট দেখিয়ে প্রতারণা করে আসছে।

সাংবাদিক ইরান ভুক্তভোগী আইরিনকে প্রায়ই তার এই ভুয়া কোটি টাকার প্রজেক্টে বিনিয়োগ করার জন্য বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। এরই অংশ হিসেবে ইরান ভুক্তভোগী আইরিনকে এই প্রজেক্টে বিনিয়োগ করলে মাসে ২৫ হাজার টাকা লাভ এবং সরকারি আনুদানে একটি বড় প্রজেক্ট পাশ করিয়ে দেবার প্রস্তাব দেয়।

আরো পড়ুনঃ  ভাবীদের সহযোগিতায় গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক গ্রেপ্তার

ইরানের প্রলোভনে প্রভাবিত হয়ে আইরিন বিভিন্ন কিস্তিতে মোট ১০ লক্ষ টাকা ইরানকে দেয়। কিন্তু টাকা বিনিয়োগের পর থেকে মাসিক কোন লভ্যাংশ কিংবা প্রজেক্টের কোন অগ্রগতি আইরিন দেখতে পাননি।

এ বিষয়ে অভিযোগকারী খাদিজা বেগম আইরিন বলেন, সাংবাদিক ইরান প্রজেক্টে বিনিয়োগের মাধ্যমে লাভের প্রলোভন দেখিয়ে আমার কাছ থেকে ১০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

টাকা বিনিয়োগের পর তার প্রজেক্টের কোন অগ্রগতি না দেখলে ইরান জানায় টাকার অভাবে প্রজেক্ট বন্ধ রয়েছে। কিছুদিনের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ পেলেই প্রজেক্ট চালু হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত ইরানের ভুয়া প্রজেক্টের কোন খবর নেই। টাকা চাইলে ইরান ও তার ভাই আমাকে জীবন নাশের ভয়ভীতি এবং বিভিন্ন হুমকি দিতে থাকে।

আইরিন আরও বলেন, ইরান আমার মত আরও অনেকের কাছ থেকেই প্রজেক্টের কথা বলে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। ইতিপূর্বে ইরানকে চাঁদাবাজি এবং প্রতারণার অভিযোগে বেতাগী প্রেসক্লাব থেকে বহিস্কারও করা হয়েছে।

বহিস্কারের বিষয়ে বেতাগী প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. মিজানুর রহমান মজনু বলেন, সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম ইরানের বিরুদ্ধে বেশ কিছু চাঁদাবাজি এবং প্রতারণার অভিযোগ বেতাগী প্রেসক্লাবে আসে। এর প্রেক্ষিতে ক্লাবের সকল সদস্যদের সম্মতিক্রমে ইরানকে প্রেসক্লাবের সদস্য পদ থেকে বহিস্কার করা হয়।

আরো পড়ুনঃ  সাংবাদিকতায় দুই যুগ অতিক্রম করলেন এম. আতিকুর রহমান আখই

আরেক ভুক্তভোগী বেতাগী পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর কোয়েল সিকদার বলেন, ইরান ও তার ভাই কিরণ দক্ষিণ বাংলা মৎস্য ও পশু পালন লিমিটেডের একটি প্রজেক্টের কথা বলে আমার কাছ থেকে দুই কিস্তিতে ৯৮ হাজার টাকা নেয়। টাকা দেওয়ার কিছুদিন পর তাদের এই প্রতারণার কথা জানতে পারি। ইরান ও তার ভাই আমার মত আরও কয়েকজনের কাছ থেকে প্রজেক্টের কথা বলে লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তিনি আরো বলেন আমার মত এরকম আরো অনেকই ইরানের প্রতারণার শিকার হয়েছেন।

অভিযোগের বিষয়ে শফিকুল ইসলাম ইরান বলেন, আইরিনের কাছ থেকে আমার মেঝ ভাই প্রজেক্টে ব্যয় করার জন্য সুদে কিছু টাকা নিয়েছিলে। কিছু টাকা পরিষদ করা হলেও সম্পূর্ণ টাকা পরিষদ করা হয়নি।

বরগুনার বেতাগী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএন) মো. সুহৃদ সালেহীন বলেন, আমি গত দুইদিন যাবত ইউপি নির্বাচনের দায়িত্ব পালনে গলাচিপায় অবস্থান করছি। অভিযোগের কপি হাতে পেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বরগুনার বেতাগী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাকসুদুর রহমান ফোরকান বলেন, সাংবাদিক ইরানের বিরুদ্ধে এর আগেও এমন অভিযোগ আমার কাছে এসেছে।

বুধবার আইরিন নামে এক ভুক্তভোগী আমাকে ইরানের বিরুদ্ধে অভিযোগের একটি অনুলিপি দিয়ে যায়। অভিযোগের ব্যপারে তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বেতাগী প্রতিনিধি।