patrika71 Logo
ঢাকাশনিবার , ২৮ আগস্ট ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইভেন্ট
  9. ইসলাম
  10. কবিতা
  11. করোনাভাইরাস
  12. কৃষি
  13. খেলাধুলা
  14. চাকরী
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ভেঙে পড়া সেতু ৬ বছর অতিবাহিত হলেও নেই মেরামত বা পুনঃনির্মাণের উদ্যোগ

পত্রিকা একাত্তর ডেক্স
আগস্ট ২৮, ২০২১ ১:৪৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ad

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ-জমিনমৃধা এলাকায় সুতাবাড়িয়া নদীর ওপর নির্মিত সেতু  ভেঙে পড়ার প্রায় ৬ বছর অতিবাহিত হলেও এখনো মেরামত বা পুনঃনির্মাণের উদ্যোগ চোখে পড়েনি। এতে চরম ভোগান্তিতে আছেন আশপাশের ১১টি গ্রামের প্রায় ৬ সহস্রাধিক মানুষ।

জানা গেছে, উপজেলার ঠাকুরের হাট সংলগ্ন পরিত্যক্ত লোহার সেতুটি সরিয়ে এনে বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের জমির মৃধা বাজার এলাকায় স্থাপন করা হয়েছিল। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এডিবি’র অর্থায়নে এই সেতু স্থাপন করতে ব্যয় হয় ১০ লাখ টাকা। লোহার বিমের ওপর ১৫০ ফুট লম্বা আরসিসি কনক্রিট ঢালাই প্লেট বসানো হয়। এর কিছুদিনের মধ্যেই সেতুর মাঝখানে প্রায় ২৫ ফুট অংশ ভেঙে নদীতে পড়ে যায়।

খারিজা বেতাগী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, জাফরবাদ-জমিন মৃধা সেতু দিয়ে তিনটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ, উপজেলা সদর, খারিজা বেতাগী হাট, জমিন মৃধা বাজার, রনুয়া বাজার ও বড়গোপালদি বাজারে প্রতিদিন শত শত মানুষ পণ্যপরিবহন সহ যাতায়াত করতো। বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মহিবুল আলম জানান, সেতটিু না থাকায় রনুয়া, গুয়াবাশ বাড়িয়া, বকুল বাড়িয়া, জমিন মৃধা, চিঙ্গুরিয়া বেতাগী, খারিজা বেতাগী, জাফরাবাদ, মর্দনা ও মাছুয়াখালী, চাদ্রাবাজ, রামবল্লভ সহ ১১ টি গ্রামের ৬ সহাস্র্রাধিক মানুষের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

সেতুটি ভেঙে যাওয়ায় ইউনিয়নটি দুই ভাগে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বিষয়টি বহুবার উন্নয়ন সমন্বয় সভায় তুলে ধরা হয়েছে। মাটি ভালো না অজুহাতে সেতু নির্মাণ সম্ভব নয় বলে এলজিইডি জানিয়ে আসছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মাকসুদ জানান, গুরুত্বপূর্ণ সেতুটি আবার নির্মাণ না হওয়ায় খালের পূর্ব পাড়ের মানুষের দশমিনা উপজেলা সদরের সঙ্গে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে এলজিইডি’র দশমিনা উপজেলা প্রকৌশলী মো. মকবুল হোসেন জানান, প্রস্তাবিত জায়গার মাটি একাধিকবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেছে মাটির নিচের অংশ খুব খারাপ তাই ওখানে সেতু নির্মাণ সম্ভব নয়। স্থান পরিবর্তন করে কবে সেতু নির্মাণ হতে পারে সে ব্যাপারে তিনি কিছুই বলতে পারছেন না।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী-৩ আসনের সসংদ সদস্য ও বাংলাদেশ নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য এমএম শাহজাদা বলেন, সেতুটি নির্মাণের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সঙ্গে আলাপ করে আমি বিস্তারিত জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।

দশমিনা প্রতিনিধি: মোঃ আসাদুল মল্লিক।