patrika71 Logo
ঢাকাশুক্রবার , ৯ জুলাই ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. কবিতা
  10. করোনাভাইরাস
  11. কৃষি
  12. খেলাধুলা
  13. চাকরী
  14. জাতীয়
  15. টেকনোলজি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দুইশ ছয়টা সিলিন্ডার থাকতে বাইরে থেকে কেন সিলেন্ডার নিচ্ছে

পত্রিকা একাত্তর ডেস্ক
জুলাই ৯, ২০২১ ৮:৩৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দুইশ ছয়টা সিলিন্ডার থাকতে বাইরে থেকে কেন সিলেন্ডার নেওয়া হয় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে? এমনই প্রশ্ন তুললেন পাবনা স্টুডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন এর গ্রুপের একজন সদস্য। ফেসবুক গ্রুপ পাবনা স্টুডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপে তিনি জানান
পাবনা জেনারেল হাসপাতাল ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট।

সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের প্রকট খুব বেড়ে গিয়েছে বাংলাদেশের প্রায় সকল জেলাতে খুব মহামারী আকার ধারণ করেছে আমাদের পাবনা সেদিক থেকে পিছিয়ে নেই এই করোনা মহামারীতে অক্সিজেনের অভাবে হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছে আমরা এই ব্যাপারে সবাই অবগতি আছি।

পাবনা সদর হাসপাতালে হিসাব অনুযায়ী খাতা কলমে ২০৬ টা সিঙ্গেল সিলেন্ডার আছে করোনা ওয়ার্ড শিশু ওয়ার্ড সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডে এই সিলিন্ডার গুলো অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ করবে জন্য খবরে দেখতে পেলাম অক্সিজেনের অভাবে মানুষ মারা যাচ্ছে কিন্তু সেই খবর বাহিরে প্রকাশ হয় খুবই কম কারণ সাংবাদিকের নাকি পারমিশন লাগে পাবনা হাসপাতালের ভিতরে সবকিছু ক্যামেরাবন্দি করতে।

কিছুদিন আগে প্রথম আলো পাবনার সাংবাদিক Hasan Mahmud Dee ভাই এই পরিস্থিতির শিকার হয়েছিল
২০৬ টা সিলিন্ডার থাকতে হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে অসহায় মানুষ মারা যাচ্ছে কেন???
কারণ বাস্তব ক্ষেত্রে আমরা যদি দেখতে চাই পুরা হাসপাতালে ১০০ টা সিলিন্ডার পাব কিনা সন্দেহ!!!
রাজশাহী নাকি রিফিল করতে পাঠানো হয় কিন্তু আসবে কবে কারো কাছে কোন তথ্য নেই এই যে বাদ বাকি ১০০ টা সিলিন্ডার কোথায় আছে কেউ নাকি জানে না!!!

সিভিল সার্জন নাকি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এই বিষয়গুলো কোনদিন দেখে কিনা আজও জানা নেই
অনেক স্বেচ্ছাসেবক ভাইয়েরা রাতের পর রাত অক্সিজেন সেবা দিয়ে যাচ্ছে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এমনকি হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছে সিলেন্ডার

২০৬ টা সিলেন্ডার থাকতে কেন বাহির থেকে সিলেন্ডার হাসপাতালে নিতে হয়?
উত্তরটা কেউ যদি পারেন দিয়ে যাবেন?
বাদ বাকি ১০০ সিলিন্ডার এর কোনো খোঁজ নাই?

আর সাথে যুক্ত আছে অস্বাস্থ্য,অপরিষ্কার নোংরা পরিবেশ। তার এই গ্রুপ পোস্ট থেকে জানা যায় পাবনা জেনারেল হাসপাতালের এমন অভিযোগের কথা।

মুনিম শাহরিয়ার,
পাবনা জেলা প্রতিনিধি।