patrika71 Logo
ঢাকামঙ্গলবার , ১৭ আগস্ট ২০২১
  1. অনুষ্ঠান
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. আন্দোলন
  7. আবহাওয়া
  8. ইভেন্ট
  9. ইসলাম
  10. কবিতা
  11. করোনাভাইরাস
  12. কৃষি
  13. খেলাধুলা
  14. চাকরী
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপে শিশু আজমিরের চোখ রক্তাক্ত

পত্রিকা একাত্তর ডেক্স
আগস্ট ১৭, ২০২১ ৯:০০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ad

নীলফামারীর সৈয়দপুরে চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ করায় এক শিশুর চোখ রক্তাক্ত হয়েছে। সৈয়দপুরের হোম সিগন্যালের কাছে ঘটনাটি ঘটে। শিশু আজমির ইসলাম (৫) বর্তমানে ঢাকার ইসলামিয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

রোববার খুলনাগামী ‘আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস’ যোগে গ্রামের বাড়ি ডোমার থেকে পরিবারের সাথে সৈয়দপুর আসার পথে ঘটনাটি ঘটে। শিশু আজমির ইসলাম (৫) ডোমার উপজেলার আমবাড়ি গ্রামের হ্যাচারী ব্যবসায়ী মারুফ ইসলামের ছোট ছেলে। সন্তানদের পড়ালেখার জন্য সৈয়দপুরের মুন্সীপাড়ায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন।

আজমিরের পিতা মারুফ ইসলাম জানান, ট্রেনে সৈয়দপুর যাওয়ার পথে শিশু আজমির জানালার পাশে বসে। হঠাৎ একটি পাথরের ঢিল এসে আজমিরের ডান চোখে লেগে রক্তাক্ত হয়। এমতাবস্থায় সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশনে নেমেই রেলওয়ে পুলিশের এ.এস.আই. প্রভাষ কুমারের সহায়তায় দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ রবিউল ইসলাম দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। তবে সেখানকার চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাঃ রাশেদুল ইসলাম মাওলার কাছে নিয়ে গেলে তিনি ঢাকা পাঠিয়ে দেন।

বর্তমানে শিশু আজমিরকে রাজধানী ঢাকার ইসলামিয়া হাসপাতালের ১২৬ নম্বর কেবিনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাখা হয়েছে। সেখানে চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাঃ কামরুল হাসান সোহেলের তত্ত্বাবধানে শিশুটি চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আজমিরের চিকিৎসক জানান, প্রচুর রক্তক্ষরণের কারণে শিশু আজমিরের ডান চোখের ৮০ শতাংশ নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তার অন্ধ হয়ে যাওয়ার প্রবণতা অধিক। সৃষ্টিকর্তার নেয়ামত ছাড়া বাচ্চাটির অন্ধত্ব দূর করা সম্ভব না আপাতত। আমরা শিশুটির সুস্থতা নিশ্চিতে কাজ করছি।

ভুক্তভোগী শিশু আজমির ইসলামের পিতা মারুফ ইসলাম রেলওয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও কর্মচারীর দায়িত্বে অনিহাকে দুষছেন। সেইসাথে পাথর নিক্ষেপকারী ও দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তা প্রহরীর বিচার দাবী করেন।

আজমির রহমান রিশাদ: ডোমার, নীলফামারী প্রতিনিধি।

ad